গণহত্যা-নির্যাতন ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক গবেষণা কেন্দ্রের কর্মকাণ্ড

১) প্রশিক্ষণ কোর্স:

মুক্তিযুদ্ধ ও গণহত্যা নিয়ে বছরে অন্তত দু’টি পোস্ট গ্রাজুয়েট সার্টিফিকেট কোর্সের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগে স্থানীয় পর্যায়ে তরুণ মুক্তিযুদ্ধ গবেষক তৈরি করছি আমরা। দেশবরেণ্য ইতিহাসবিদ, মুক্তিযোদ্ধা, অধ্যাপক, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী, আর্কিভিস্ট, রাজনীতিবিদ, আইনবিদ এবং গবেষকগণ শিক্ষার্থীদের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস এবং গবেষণা সম্পর্কে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন। বাংলাদেশের প্রতিটি বিভাগের তরুণদেও কাছে এই প্রশিক্ষণ নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা আমাদের আছে। সেজন্য, এই কোর্সের প্রথম ব্যাচের প্রশিক্ষণ খুলনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে যেটির মাধ্যমে আমরা ৩১ জন নতুন মুক্তিযুদ্ধ গবেষক তৈরি করেছি। তাদের গবেষনাপত্রগুলি সম্পাদনা করে গ্রন্থ/প্রবন্ধ আকারে প্রকাশের কাজ চলছে। এছাড়া বর্তমানে এই কোর্সের দ্বিতীয় ব্যাচের কর্মকান্ড চলমান আছে। আগামী প্রশিক্ষণ কোর্সের স্থান হিসেবে রংপুর বিভাগকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করা হয়েছে।

২) শহিদ স্মৃতি বক্তৃতা ও জাতীয় সেমিনার:

জাদুঘরের উদ্যোগে নিয়মিত আয়োজন করা হচ্ছে শহিদ স্মৃতি বক্তৃতা ও জাতীয় সেমিনার। এখন পর্যন্ত থেকে তিনটি শহিদ স্মৃতি বক্তৃতা এবং তিনটি জাতীয় সেমিনার আয়োজন করা হয়েছে। সেমিনারে দেশ-বিদেশের মুক্তিযুদ্ধ গবেষক এবং শহিদ পরিবারের সন্তানেরা এগুলিতে আলোচক হিসেবে অংশ নিয়েছেন।

 

৩) স্মৃতিফলক স্থাপন:

গণহত্যার বিস্মৃত স্থানগুলি চিহ্নিত করার পাশাপাশি জাদুঘরের উদ্যোগে বিভিন্ন বধ্যভূমিতে ফলক নির্মাণের উদ্দেশ্যে নি¤œলিখিত স্থানগুলিতে ফলক নির্মাণের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ইতিমধ্যে খুলনা জেলার ২০টি গণহত্যাস্থল/বধ্যভূমিতে স্মৃতিফলক নির্মাণ করা হয়েছে।

 

৪) লাইব্রেরি ও আর্কাইভস্:

গণহত্যা জাদুঘরের লাইব্রেরি মুক্তিযুদ্ধের উপর হাজারের বেশী বই রয়েছে। এছাড়া, আমাদের আর্কাইভসে ইতোমধ্যে সংগ্রহ করা হয়েছে অনেকগুলো সিডি, ছবি, পেপার ক্লিপিং। ঢাকা থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ পত্রিকা – দৃষ্টিপাত, পূর্ব্বায়ন, সপ্তাহ, আজাদ-৭১, দেশের ডাক, ত্রিপুরা, জাগরণ ও গণসংহতি। তাছাড়া বিভিন্ন লিফলেট সংগ্রহ করা হচ্ছে। গবেষণা কেন্দ্রের উদ্যোগে সারা বিশে^র গণহত্যা সংক্রান্ত বাৎসরিক সব গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ নিয়ে জেনোসাইড মিডিয়া ডাইজেস্ট এর কাজ চলছে। কেন্দ্রের উদ্যোগে প্রতিবছর এই রেফারেন্স বইটি প্রকাশিত হবে।

 

৫) নির্ঘন্ট গ্রন্থমালা প্রকাশ:

গবেষণা কেন্দ্র শুরুর আগে জাদুঘরের উদ্যোগে ৩১টি নির্ঘন্ট গ্রন্থমালা প্রকাশিত হয়েছিলো। গবেষণা কেন্দ্র চালুর পর মাত্র সাত প্রশিক্ষণ, গবেষণা এবং জরিপ এর পর মাত্র সাত মাসে আরো নির্ঘন্ট গ্রন্থমালাসহ মোট ১৩ টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

৬) ফেলোশিপ:

মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে গবেষণার জন্য গবেষণা কেন্দ্রের আওতায় ৪ টি জুনিয়র ফেলোশিপ ও ৩টি সিনিয়র ফেলোশিপ প্রদান করা হয়েছে।

 

৭) বধ্যভূমি জরিপ:

গণহত্যা-নির্যাতন, বধ্যভূমি ও গণকবর বিষয়ে জেলাভিত্তিক জরিপ পরিচালনার জন্য প্রাথমিকভাবে ২১টি জেলা নির্বাচন করা হয়েছে এবং একাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। আগামী ডিসেম্বেরে এই জেলা জরিপের ফাইন্ডিংস নিয়ে একটি জাতীয় সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে।

 

৮) অডিও ভিজুয়াল:

এছাড়া, অডিও ও ভিজুয়্যাল মাধ্যমকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে জাদুঘরের কার্যক্রমে।  এজন্য জাদুঘরের সহ-প্রযোজনায় এবং ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবিরের পরিচালনায় ‘এবহড়পরফব ১৯৭১: ঙঃযবৎ ঠড়রপবং রহ চধশরংঃধহ’ শীর্ষক তথ্যচিত্রের নির্মাণ কাজ চলছে। বিশ্বের কয়েকটি দেশে এর শ্যুটিং চলছে।

এছাড়া টিভি প্রযোজক ও নির্মাতা প্রণব সাহা জাদুঘরের অর্থায়ানে নির্মাণ করছেন ‘বঙ্গবন্ধু ও  মার্চ ১৯৭১’ শীর্ষক তথ্যচিত্র।

© Genocide Museum Bd | All Rights Reserved | Developed by mdotmedia